নড়াইলের মধুমতি নদীর ভাঙনে প্রতিরক্ষা প্রতিরোধের ব্যবস্থা

উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধি■(২৮ এপ্রিল) \ নড়াইলের মধুমতি নদীর ভাঙন প্রতিরক্ষা প্রতিরোধে কাজ ৪১০ মিটার স্থায়ী
প্রতিরক্ষা বাঁধ কাজ করায় মধুমতি নদীর ভয়াবহ ভাঙন থেকে রক্ষা পাচ্ছে নড়াইলের ঘাঘা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ইউনিয়ন পরিষদ
ভবন, স্লুইচগেটসহ অন্তত ১০০ বাড়িঘর ও ৫০০ শতাধিক গাছপালা। এদিকে নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই কাজ শেষ করার দাবি
ভ‚ক্তভোগীদের।



পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) স‚ত্রে জানা গেছে, সাড়ে ১১ কোটি টাকা ব্যয়ে নড়াইলের ভাঙন কবলিত ঘাঘা গ্রামে ৪১০
মিটার এলাকায় স্থায়ী প্রতিরক্ষা কাজ চলছে। চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে প্রতিরক্ষা কাজ শুরু হয়েছে। এ লক্ষ্যে জিও ব্যাগ ও ব্লক
নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে ৮ হাজার জিও ব্যাগ ডাম্পিং করা হয়েছে। আরো জিও ব্যাগ ও ব্লক দেয়া হবে। আগামি বছর
মে মাসে এ কাজ শেষ হবে।
পঞ্চম শ্রেণীর শিক্ষার্থী আখি মনি, ৪র্থ শ্রেণীর সাথি খানম, আজমির ও রেহান, নড়াইল জেলা অনলাইন মিডিয়া ক্লাবের সভাপতি
উজ্জ্বল রায়কে জানান, ‘আমরা সবসময়ই ভাবি কখন জানি নড়াইলের ঘাঘা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি নদীতে টেনে নিয়ে যায়।
আমাদের পড়া লেখার খুব ক্ষতি হচ্ছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড নড়াইলের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ শাহানেওয়াজ তালুকদার, নড়াইলের
মধুমতি নদীর বাধ নির্মাণে সময়ক্ষেপনে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের ওপর দায় চাপিয়ে বলেন, ‘ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কিছুদিন দেরীতে
কাজ শুরু করেছে। তারা স্পেসিফিকেশন অনুযায়ী জিও ব্যাগ ব্যবহার না করায় তাদের কয়েক হাজার ব্যাগ বাতিল করা হয়েছে। এ
ব্যাপারে তাদের চিঠি ও দেয়া হয়েছে। ঠিকমতো কাজ না করলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Next Post

পঞ্চায়েত ভোটের সময় গুজরাত দাঙ্গা, গোধরা ভুলে গিয়েছ? মমতার তিরে মোদী

Sun Apr 28 , 2019
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজ্যে বিজেপি কর্মীদের প্রাণসংশয়ের পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে বলে শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অভিযোগ করেছিলেন। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে প্রকাশ্য সভা থেকে তৃণমূল নেত্রী পাল্টা বিজেপি শাসিত গুজরাতকে সন্ত্রাসের অন্যতম শীর্ষ রাজ্য বলে তোপ দাগলেন। ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর(এনসিআরবি) তথ্য উল্লেখ করে শনিবার মমতা হাওড়া, হুগলির সভায় মোদীকে বিঁধে বলেন, […]