Home / Uncategorized / বিবাহিতদের সারাজীবন কাজে লাগার মতো জরুরি কিছু পরামর্শ

বিবাহিতদের সারাজীবন কাজে লাগার মতো জরুরি কিছু পরামর্শ

বিয়ের পর সবার জীবনেই শারীরিক এবং মানসিক নানা পরিবর্তন আসে। এক পরিবেশ থেকে অন্য পরিবেশে যাওয়া, অন্য রকম জীবনযাত্রা, খাদ্যাভ্যাসে পরিবর্তন বহু কিছুই দায়ী। মূলত হরমোনের পরিবর্তনই এর পেছনে দায়ী। বিয়ের পর শরীর ফিট রাখতে কিছু পরামর্শ দিয়েছেন পুষ্টিবিদরা।

বিবাহিত জীবন উপভোগ করার পাশাপাশি কর্মক্ষেত্রেও কাজ চালিয়ে যেতে হয় নিয়মিত। সব কিছু সামলাতে গিয়ে শরীর দুর্বল হয়ে যেতে পারে। এ জন্য বিবাহিত জীবন আরো সুন্দর করতে এবং নিজেকে ফিট রাখতে কার্যকর ভূমিকা পালন করে এই খাবারগুলো।

ডিম
শরীরের দুর্বলতা, ক্লান্তি দূর করতে ডিমের জুড়ি নেই। তাই আপনার প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় ডিম অবশ্যই রাখবেন। ডিমে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন বি-৫ ও বি-৬ আছে, যা শরীরের হরমোনের কার্যক্রম ঠিক রাখে এবং মানসিক চাপ কমাতে সাহায্য করে। প্রতিদিনের সকালের নাস্তায় একটি করে ডিম রাখুন। এতে আপনার শরীর শক্তি পাবে এবং যৌন ক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে।

দুধ 
সবাই ফ্যাট জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলতে চান। অনেকেই মনে করেন দুধ মোটেই শরীরের পক্ষে ভালো নয়। তবে মাখন তোলা দুধ শরীরের জন্য উপকারী। এতে প্রয়োজনীয় খনিজ, ভিটামিন থাকে।

মধু
সকালে গরম পানির সঙ্গে লেবুর রস আর মধু খান। এতে ত্বকও ভালো থাকবে।

রসুন 
রসুন ক্লান্তি দূর করে। যৌন উদ্দীপনা ধরে রাখে। এছাড়াও শরীরে রক্ত প্রবাহ ঠিক রাখে।

চা 
চা পান করুন প্রতিদিন। দিনে এক বা দুই কাপ চা পান করলে দেহে প্রবেশ করে বিভিন্ন এন্টিঅক্সিডেন্ট, যা পুরুষের নানা সমস্যা সমাধানে সিদ্ধহস্ত।

কফি 
কফির মধ্যে থাকা ক্যাফাইন শারীরিক মিলনের ইচ্ছা জাগায়। তাই কফি অবশ্যই খান। ব্ল্যাক কফি খেতে পারলে আরো ভালো।

চকলেট 
চকলেট মানেই ভালোবাসা। আর প্রেম ও মিলনের সঙ্গে চকলেটের অন্য সম্পর্ক রয়েছে। তাই চকলেট খান।

কলা 
কলায় রয়েছে ভিটামিন ‘এ’, ‘বি’, ‘সি’ ও পটাশিয়াম। ভিটামিন ‘বি’ ও পটাশিয়াম মানবদেহের যৌনরস উৎপাদন বাড়ায়। আর কলায় রয়েছে ব্রোমেলিয়ানও, যা শরীরের টেস্টোস্টেরনের মাত্রা বাড়াতেও সহায়ক। সর্বোপরি কলায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণ শর্করা, যা দেহের শক্তি বৃদ্ধি করে।

সামুদ্রিক মাছ 
সামুদ্রিক মাছে রয়েছে ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড যা সুস্থ জীবনের অন্যতম উপাদান। জাতীয় মাছ ইলিশে এই ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিডে ভরপুর, অন্যান্য সামুদ্রিক মাছেও পাবেন প্রচুর পরিমাণে এই তেল। মাছে আরো রয়েছে আরজিনিন নামে এক ধরনের যৌগ যার একটি কাজ হচ্ছে পুরুষদের সক্ষমতায় সহায়তা করা।

বাদাম 
নিয়মিত বাদাম খাওয়া খুব ভালো একটা অভ্যাস। বাদামের তেল রক্তে খারাপ কোলেস্টেরলের পরিমাণ কমিয়ে রক্তপ্রবাহ স্বাভাবিক রাখে। এটা পুরুষের জন্য খুব উপকারী। দেশি বাদাম, কাজু বাদাম, পেস্তা বাদাম যেকোনো বাদামেই এই উপকার পাবেন। বাদামে আরো রয়েছে ভিটামিন ‘ই’ যার সুনাম রয়েছে বার্ধক্যের সঙ্গে যুদ্ধে।

অ্যাভোকাডো 
সুস্থ যৌন জীবনের জন্য নারী-পুরুষ উভয়েরই সঠিক ব্যায়াম ও স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাসের পাশাপাশি ওজন নিয়ন্ত্রণ করা জরুরি। অ্যাভাকাডো এমন এক স্বাস্থ্যকর খাদ্য, যা ওজন নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ফলিক অ্যাসিড, লিবডো বুস্টিং ও ভিটামিন ‘সি’, যা দম্পতিদের যৌনজীবন আনন্দিত রাখতে সাহায্য করে।

স্ট্রবেরি 
ফলিক অ্যাসিড ও ভিটামিন ‘বি’র অন্যতম উৎস স্ট্রবেরি। এ ফল নারীদের বন্ধ্যত্ব কমিয়ে উর্বরতা বাড়ায় ও পুরুষের যৌন সক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।

রঙিন ফল 
যৌন স্বাস্থ্য ভালো রাখতে চাইলে প্রতিদিন খাবার তালিকায় রঙিন ফলমূল রাখুন। আঙ্গুর, কমলা লেবু, তরমুজ, পিচ ইত্যাদি ফল যৌন ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য অত্যন্ত উপকারী। ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাসের মেডিকেল টিমের গবেষণা অনুযায়ী একজন পুরুষের প্রতিদিনের খাবার তালিকায় অন্তত ২০০ মিলিগ্রাম ভিটামিন ‘সি’ থাকলে তার স্পার্মের কোয়ালিটি উন্নত হয়। আবার টেক্সাসের এ অ্যান্ড এম ইউনিভার্সিটির মতে, তরমুজ শরীরে যৌন উদ্দীপনা বৃদ্ধি করে। তারা যৌন উদ্দীপক ওষুধ ভায়াগ্রার সঙ্গে তরমুজের তুলনা করেছেন।

About Johir

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

এসব লোকদের প্রতিভা আছে। কিন্তু সুযোগ নেই (ভিডিও)